বাংলাদেশ-ভারত ফুটবল ম্যাচ লাইভ

জামালও খেলেন কার্ড

গোল হজমের পর বাংলাদেশ খানিকটা খেই হারিয়ে ফেলেছে। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া হলুদ কার্ড দেখেছেন। ভারত ৮৪ মিনিটে আরেকটা কর্নার পেলেও বল সরাসরি গ্রিপে নেন গোলরক্ষক জিকো।

 

ছেত্রীর গোল

৭৮ মিনিট পর্যন্ত আটকে রেখেছিল বাংলাদেশ। ৭৯ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে ক্রসে অধিনায়ক ছেত্রী বক্সের মধ্যে হেড করে গোল করেন। দুই ডিফেন্ডার থাকলেও তারা মার্ক করতে পারেননি ভারতীয় অধিনায়ককে।

আরও দুই পরিবর্তন

ম্যাচের ৭৩ মিনিটে দুইটি পরিবর্তন একসাথে করেন কোচ জেমি। মতিন মিয়ার পরিবর্তে ফরোয়ার্ড সুমন রেজা ও রাকিবের জায়গায় মেহেদী হাসান। দুই ফুটবলার নামার দুই মিনিট পর দুইটি টানা কর্নার পায় বাংলাদেশ। জামালের নেয়া শট অবশ্য গোলের সুযোগ তৈরি হয়নি।

আরও একটি কার্ড দেখলেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা

প্রথমার্ধে ২ কার্ডের পর দ্বিতীয়ার্ধে আরেকটি কার্ড দেখেছে বাংলাদেশ। মিডফিল্ডার বিপলু আহমেদ বাংলাদেশ অর্ধে ফাউল করেন। ৪০ গজ দূর থেকে সেই ফ্রি-কিকে ভারতীয় অধিনায়ক সুনিল ছেত্রীর হেড পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।

দুই ভারতীয় বদলি

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ভারতীয় কোচ ইগর স্টিমাচ দুই ফুটবলারকে বদলি করেন৷ ইয়াসিন ও কুরনাইন দুই মিডফিল্ডারকে নামান স্টিমাচ৷ ভারতীয় কোচ ইগর ডাগ আউটে মেজাজ হারিয়েছেন কয়েকবার। রেফারির সিদ্ধান্তে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন কয়েকবার

ভারতের আধিপত্যে শেষ প্রথমার্ধ

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে এখন পর্যন্ত দুই পয়েন্ট পেয়েছে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচে আফগানিস্তান ও এর আগে ভারতের বিপক্ষে এই পয়েন্ট পান জামাল ভূঁইয়ারা। সোমবার কাতারের দোহায় দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের লাইভ আপডেট দিচ্ছে জাগ্রত জনতা-

ভারতের আধিপত্যে শেষ প্রথমার্ধ

ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়েছে। আগের লেগে কলকাতায় হাফ টাইমে বাংলাদেশ ১-০ গোলে লিড নিয়েছিল। আজ প্রথমার্ধে এক পর্যায়ে ভারত বল পজেশন ছিল ৭৪। বাংলাদেশ বল সেভাবে পায়ে রাখতে পারেনি। বাংলাদেশ রক্ষণভাগের ফুটবলাররা ভারতীয় ফুটবলারদের মোটামুটি ভালোই সামাল দিয়েছেন।

জনির পরিবর্তে ইব্রাহিম

ম্যাচের ৩৫ মিনিটে মাসুক মিয়া জনির পরিবর্তে মিডফিল্ডার ইব্রাহিমকে নামান কোচ জেমি ডে। ইব্রাহিম নামার পরের মিনিটেই গোল লাইন সেভ করেন ডিফেন্ডার রিয়াদুল হাসান রাফি৷ কর্ণার থেকে সিংয়ের হেড গোললাইন থেকে ফেরান রাফি। ৩২ মিনিটে বাংলাদেশের আরেক ফুটবলার রহমত মিয়া কার্ড দেখেন।

কাউন্টার অ্যাটাকিং কৌশল বাংলাদেশের

ডিফেন্সিভ কাউন্টার অ্যাটাকিং কৌশল বাংলাদেশের। ভারত বল পজেশন ও আক্রমণে এগিয়ে। রক্ষণ ঠিক রেখে দ্রুত আক্রমণ করার চেষ্টা করছে বাংলাদেশ। ২৬ মিনিটে বক্সের ডান প্রান্তে ফ্রি কিক পায় ভারত। সেই আক্রমণ থেকে ভারত কিছু করতে পারেনি। বাংলাদেশও দুই মিনিট পর ফ্রি কিক পায়। জামাল ভূঁইয়ার নেওয়া লম্বা ফ্রি কিক ভারতের রক্ষণ দেয়ালে প্রতিহত হয়।

বল পায়ে আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ

১২ মিনিটে আবার ভারতের ফুটবলারেরর মাসেল পুল। ডিফেন্ডার শুভাশীষ বোসের জন্য খেলায় ছন্দ পতন। বাংলাদেশ এই ম্যাচে শুরু থেকে আত্মবিশ্বাসী। ১৫ মিনিটে মানভির সিং গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন। মিডফিল্ড থেকে থ্রু পাসে বাংলাদেশের ডিফেন্স ভেদ করে মানভির বক্সে প্রবেশ করেন। আগুয়ান গোলরক্ষক জিকোকে পাশ কাটিয়ে অবশ্য সেভাবে শট নিতে পারেননি মানভীর। বক্সের মাঝে বাংলাদেশের ডিফেন্ডার বল ক্লিয়ার করেন।

শুরুতেই হলুদ কার্ড দেখলেন বাংলাদেশের রাকিব

ম্যাচের মাত্র দ্বিতীয় মিনিটেই রাকিব হোসেন হলুদ কার্ড দেখেছেন। ভারতের অর্ধে বল দখলের লড়াইয়ে প্রতিপক্ষের মিডফিল্ডার ব্রেনডনকে ফাউল করেন রাকিব। ইরাকি রেফারি কার্ড দেখান রাকিবকে। ব্রেনডম মিনিট দুয়েকের মতো মাঠে কাতরিয়ে উঠে পড়েন। দশ মিনিট পর্যন্ত কোন দলই উল্লেখযোগ্য আক্রমণ করতে পারেনি। ৮ম মিনিটে প্রথম কর্ণার পায় ভারত।

কেমন হলো দুই দলের একাদশ

বাংলাদেশ একাদশ: আনিসুর রহমান জিকো ( গোলরক্ষক ), তপু বর্মণ, রিয়াদুল হাসান রাফি, রহমত মিয়া, তারিক কাজী, মানিক মোল্লা, জামাল ভূইয়া, মাসুক মিয়া জনি, রাকিব হোসেন, বিপলু আহমেদ ও মতিন মিয়া।

ভারতীয় একাদশ: গুরপ্রীত সিং (গোলরক্ষক), সুভাশিষ বোস, সিং কোনসাম, সন্দেশ জিরগান, মার্টিন্স, মানভির সিং, ব্রেনডেন ফারনানদেজ, সুনীল ছেত্রী (অধিনায়ক ), বিপিন সিং কুমাম, উদাতা সিং ও সুরেশ সিং।

১৮ বছরের অপেক্ষা…

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ জিতেছিল ১৮ বছর আগে। তাদের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০০৩ সালে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেটি ছিল সাফ সেমিফাইনালের ম্যাচ। আজ জামাল ভূঁইয়াদের সামনে সুযোগ থাকছে ১৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটানোর।

Check Also

জার্মানির কাছে হারল পর্তুগাল রোনালদোর গোলেও হলো না রক্ষা,

জার্মান কোচ জোয়াকিম লো চাইলে বলতেই পারেন, আমার হাজারটা সমস্যা থাকলেও পর্তুগালকে হারানো তার মধ্যে …

x
www.jagrotojanata.com want to
Show notifications for the latest News&Updates