ক্রিকেট থেকে অবসরে গেলেন রাজ্জাক-নাফিস

1 week ago 23
ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার অনুষ্ঠানে আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফিস

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে আজ (শনিবার) অবসর নিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের আইকনিক তারকা আব্দুর রাজ্জাক ও শাহরিয়ার নাফিস। এদিন দুপুরে মিরপুর স্টেডিয়ামের মিডিয়া সেন্টার সংলগ্ন ১ নং প্লাজায় ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) মাধ্যমে তারা দুজন নিজ নিজ ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘোষণা দেন।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এছাড় রাজ্জাক-নাফিসকে বিদায় জানিয়েছেন বিসিবির সকল কর্মকর্তারা।

দেশের ক্রিকেটে রাজ্জাক-নাফিসের অবদান কখনো ভুলবেন না টাইগার ভক্তরা। কারণ বাংলাদেশের একমাত্র বোলার হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৬০০ উইকেট শিকারি আব্দুর রাজ্জাক। তার বর্তমান উইকেট সংখ্যা এখন ৬৩৪। ৫ উইকেট নিয়েছেন ৪১ বার, ম্যাচে ১০ উইকেট ১১ বার। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে শিকার করেছেন ৪১২ উইকেট। সেরা বোলিং ইনিংস ১৭ রানের বিনিময়ে ৭ উইকেট। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সীমিত ওভারের খেলায়ও এক সময়ে বাংলাদেশ দল তাকে ছাড়া ভাবা যেত না। তাছাড়া ওয়ানডেতে বাংলাদেশের প্রথম দুইশ উইকেট শিকারি তিনিই। এই ফরমেটে ১৫৩ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ২০৭ উইকেট। ১৩ টেস্টে তার শিকার ২৮ উ্ইকেট। আর ৩৪ টি টোয়েন্টির থলিতে পুরেছেন ৪৪ উইকেট।

এছাড়া শাহরিয়ার নাফিসের ক্রিকেট ক্যারিয়ারও বেশ উজ্জ্বল। তিনি ওয়ানডেতে ৭৫ ম্যাচে ৩১.৪৪ গড়ে নামের পাশে যোগ করেছেন ২২০১ রান। সেঞ্চুরি চারটি ও ফিফটি ১৩টি। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে তিনিই প্রথম আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সেঞ্চুরির দেখা পান (২০০৬ সালে, জয়পুরে, ১২৩ রান, প্রতিপক্ষ-জিম্বাবুয়ে)। একমাত্র টি টোয়েন্টি থেকে সংগ্রহ করেছেন ২৫ রান। আর নাফিস ২৪ টেস্টে ৪৮ ইনিংসে ২৬.৩৯ রান গড়ে সংগ্রহ করেছেন ১২৬৭ রান। সেঞ্চুরি ১টি ও ফিফটি ৪টি। একমাত্র সেঞ্চুরিটি এসেছিল ২০০৬ সালে, ফতুল্লায়, সফরকারি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ব্রেট লি, জ্যাসন গিলেস্পি ও শেন ওয়ার্নদের ওমন বারুদে বোলিংয়ের বিপক্ষেও খেলেছিলেন ১৩৮ রানের ঝলমলে এক ইনিংস।

এমআই

Read Entire Article